খাগড়াছড়ি প্রতিনিধিঃ- 

 

সংবাদের তাৎক্ষনিক ব্যবস্থা গ্রহণ অসুস্থ আরিয়ানের টিউমার ওপারেশনে পাশে দাঁড়ালেন পাজেপ চেয়ারম্যান ।

খাগড়াছড়ি জেলার গুইমারার মোটর সাইকেল চালক অসহায় পিতা আব্দুল মালের এর অবুঝ শিশু আরিয়ানের টিউমার ওপারেশনে পাশে দাঁড়িয়েছেন খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মংসুইপ্রু চৌধুরী অপু। বুধবার খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদে চেয়ারম্যান মংসুইপ্রু চৌধুরী অপু অসুস্থ শিশুর পিতার হাতে ৫০ হাজার টাকার চেক তুলে দেন।

“মানবিক সহায়তায় এগিয়ে আসুন” শিরোনামে সোমবার ও মঙ্গলবার বিভিন্ন গণমাধ্যমসহ একাধিক অনলাইন পোর্টালে সংবাদটি প্রকাশ হয়। গুইমারার বাসিন্দা মোটর সাইকেল চালক আব্দুল মালেক এর ১ বছর ৬ মাস বয়সের ছেলে অবুঝ শিশু আরিয়ান এর টিউমার ওপারেশনের সাহার্য্যে এগিয়ে আসার সংবাদ দৃষ্টি গোচর হয় খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের।

বিষয়ে নজরে আসতেই তাৎক্ষণিক আরিয়ান এর নিউমার ওপারেশনের জন্য খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মংসুইপ্রু চৌধুরী অপু ৫০ হাজার টাকা বরাদ্দ দেয়। পরে বিষয়টি নিশ্চিত করে খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ এর জনসংযোগ কর্মকর্তা চিংলামং চৌধুরী জানান শিশুটির ওপারেশনের জন্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান দ্রুত ব্যবস্থা নিয়ে ৫০ হাজার টাকা বরাদ্দ দেয়।

খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মংসুইপ্রু চৌধুরী অপু বলেন, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ সব সময় অসহায় মানুষের পাশে আছে এবং ভবিষ্যতেও থাকবে। সকল জনগোষ্ঠির কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছে খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ।

চেক হাতে পেয়ে অসুস্থ আরিয়ান পিতা আব্দুল মালেক খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানকে কৃতজ্ঞ ভরে ধন্যবাদ জানান। সে সাথে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও স্থানীয় এমপি মহোদয়ের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে তিনি।

এ সময় খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা টিটন খীসা, জনসংযোগ কর্মকর্তা চিংলা মং চৌধুরী,প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবেদক আল-মামুনসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও এ সময় ক্ষেত্রপুর নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের টয়লেট ও প্রসাব খানা নির্মাণে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জ্যোতি চাকমার হাতে ৫০ হাজার টাকা তুলে দেন খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মংসুইপ্রু চৌধুরী অপু।