নিজস্ব প্রতিবেদকঃ-  

 

জাতিসংঘের পাবলিক সার্ভিস দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশের COVID-19 মোকাবেলায় নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন এমন সরকারী কর্মীদের সম্মান জানানো হয়েছে ।

 

বিশ্বের অনেক দেশের মতো বাংলাদেশও COVID-19 মহামারী দ্বারা মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। এর প্রভাব স্বাস্থ্য এবং জীবনযাত্রায় মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বাংলাদেশের স্বাস্থ্যসেবা ব্যবস্থার মতো বাংলাদেশের ব্যবসা-বাণিজ্য, জীবিকা নির্বাহ এবং শিক্ষার সেবা সরবরাহ সবই মহামারী দ্বারা সংকুচিত হয়ে পড়েছে এবং চাপ অব্যাহত রেখেছে।

 

COVID-19 মহামারীর চ্যালেঞ্জগুলির মোকাবেলায় এবং নিয়মিত সরকারী পরিসেবাগুলি পালনে সুনিশ্চিত ভূমিকা পালন করে চলেছে সরকারী কর্মকর্তারা।

 

সাজিয়া তাহের ছাগলনাইয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফেনী জেলার ছাগলনাইয়া উপজেলার সর্বোচ্চ পদে সরকারী কর্মকর্তা। উপজেলাগুলি বাংলাদেশের প্রশাসনিক অঞ্চল যা জেলার উপ-ইউনিট হিসাবে কাজ করে। সাজিয়া তাহের উপজেলা পর্যায়ে উন্নয়নমূলক কার্যক্রমের সমন্বয় সাধন করে এবং কেন্দ্রীয় সরকার এবং উপজেলার জনগণের মধ্যে যোগসূত্র হিসাবে কাজ করে।

 

অস্ট্রেলিয়া পুরষ্কার বৃত্তির সহায়তায় তিনি ২০১৯ সালে মেলবোর্ন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাবলিক অ্যাডমিনিস্ট্রেশন সম্পন্ন করেছিলেন। অস্ট্রেলিয়ায় পুরষ্কার প্রাক্তন ছাত্রী সাজিয়া তাহের অনেক প্রকল্পের মধ্যে দায়বদ্ধ, তাকে সম্প্রতি বাংলাদেশ সরকারের উন্নয়ন প্রকল্প আশ্রয়ণ ২-এ দায়িত্ব প্রদান করা হয়েছে, যেখানে তিনি ভূমিহীন ও গৃহহীন মানুষকে বৃহত্তর পর্যায়ে ঘর সরবরাহের প্রয়াসকে সমর্থন করছেন। এই প্রকল্পটি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মুজিব বর্ষের স্মরণে উদ্বোধনের এক অসাধারণ প্রচেষ্টা।

 

ছাগলনাইয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাজিয়া তাহের বলেন, “সরকারী প্রশাসনের আমার ডিগ্রিটি সামনে থেকে নেতৃত্বের জন্য আমার আত্মবিশ্বাসকে বাড়িয়ে দিয়েছে এবং উপজেলা পর্যায়ে জাতীয় সরকার প্রকল্পগুলি বাস্তবায়নের মাধ্যমে জনগণকে পরিষেবা প্রদানের প্রশাসনিক সক্ষমতা বাড়িয়েছে।” 

“স্থানীয় সকল নির্বাচিত প্রতিনিধিদের সাথে সমন্বয় করে বাড়িগুলি নির্মাণের কাজ দ্রুত করার জন্য আশ্রয়ণ ২ প্রকল্পের অংশ হতে পেরে আমি গর্বিত।”