নোয়াখালী প্রতিনিধি: নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের বসুরহাটে কাদের মির্জাকে প্রধান আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। মঙ্গলবার (৯ মার্চ) গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হওয়া আলাউদ্দিনের ছোট ভাই এমদাদ হোসেন ওরফে রাজু মামলাটি দায়ের করেন।

১৪ মার্চ রোববার দুপুরে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের ৪ নম্বর আমলী আদালতের বিচারক এসএম মোসলেহ উদ্দিন মিজান মামলাটি আমলে নিয়ে বিকেলে শুনানির সময় নির্ধারণ করেন। মামলার বাদী পক্ষের আইনজীবী হারুনুর রশিদ হাওলাদার বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, মামলায় কাদের মির্জাকে প্রধান আসামি করে তার ভাই সাহাদাত হোসেন ও ছেলে মাশরুর কাদের তাসিক মির্জাসহ ১৬৪ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও ৪০-৫০ জনকে আসামি করা হয়েছে। বিকেলে শুনানির সময় নির্ধারণ করেছেন আদালত।

জানা যায়, নিহত আলাউদ্দিনের ছোট ভাই এমদাদ হোসেন ওরফে রাজু বৃহস্পতিবার (১১ মার্চ) রাতে কাদের মির্জাকে প্রধান আসামি করে একটি লিখিত অভিযোগ নিয়ে থানায় যান। এজাহারে ত্রুটি থাকার অযুহাতে পুলিশ তা নেয়নি বলে সাংবাদিকদের জানান এমদাদ। পরে শুক্রবার (১২ মার্চ) সকাল থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত কোম্পানীগঞ্জ থানায় পুলিশ মামলা না নেওয়ায় রোববার আদালতে মামলা করা হয়। পুলিশ মামলা না নেওয়ায় নিহত আলাউদ্দিনের পরিবারের পক্ষ থেকে শুক্রবার (১২ মার্চ) সন্ধ্যায় কোম্পানীগঞ্জের চর ফকিরা ইউনিয়নের চর কালি গ্রামের নিজ বাড়িতে সংবাদ সম্মেলন করেন তারা।

এসময় তারা অভিযোগ করে বলেন, মামলার প্রধান আসামি বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জার নাম বাদ দেওয়া হলে পুলিশ মামলা নেবে বলে জানায়। কাদের মির্জার নাম বাদ না দেওয়ায় মামলা নেয়নি পুলিশ। টিবিএন/ আইএইচএস