পরশুরাম প্রতিনিধি :- 

 

০৬ অক্টোবরঃ পরশুরামে আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ইউপি সদস্য পদের নির্বাচনে প্রতিদন্ধী প্রার্থীকে সিএনজিতে উঠানোর অপরাধে সিএনজি চালককে অপহরণ করে মারধর করে প্রার্থীর নিজ বাড়ীতে ৬ ঘন্টা আটক রাখে ।

বৃহস্পতিবার রাত১০ টা অপহরণের পর অভিযোগ কারি ৯৯৯ কল দেয়। সাথে সাথে পরশুরাম মডেল থানার ওসি মু খালেদ হোসেন এর নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে ৬ ঘন্টা পর শুক্রবার ভোর ৪ টার দিকে পুলিশ বর্তমান মেম্বার ও উপজেলা আওয়ামীলীগের ত্রান ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক কাদের রাব্বানি নয়ন এর বাড়ী থেকে সিএনজি চালক হালিমকে উদ্ধার করে। এসময় পুলিশ নয়নের ছোট ভাই যুবলীগ নেতা মোঃ শাহিন মজুমদার স্বপনকে আটক করে শুক্রবার বিকেলে জেল হাজতে প্রেরণ করে।

 

সিএনজি চালককে আটক রাখার অভিযোগে প্রতিদন্ধী প্রার্থী চিথলিয়া ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক জাফর ইকবাল বাদী হয়ে বর্তমান সদস্য ও উপজেলা আওয়ামীলীগের ত্রান ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক কাদের রাব্বানি নয়নকে প্রধান আসামী করে ৪জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে। আসামীরা হলেন চিথলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান সদস্য ও উপজেলা আওয়ামীলীগের ত্রান ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক কাদের রাব্বানি নয়ন(৫০), যুবলীগ নেতা ও নয়নের ভাই পারভেজ হোসেন(৩৫),ছোট ভাই মো শাহিন মজুমদার স্বপন(৩৮), স্থানীয় ছাত্রলীগ নেতা মোঃ স্বপন(৩০) এছাড়াও আরো অজ্ঞাত নাম ৫/৬জনকে আসামী করা হয়েছে। মামলার এজাহার সুত্রে জানা গেছে বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলা রিটানিং অফিসার মোঃ সাইফুল ইসলাম চিথলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের ৭ নং ওয়ার্ডের সদস্য পদপ্রার্থী মোঃ জাফর ইকবালের মনোনয়ন ফরম বৈধ ঘোষণা করার পর মোঃ জাফর ইকবাল নির্বাচনী এলাকায় গণসংযোগ শুরু করেন এবং বৃহস্পতিবার রাত ১০টা পর্যন্ত গনসংযোগ চালান।

 

জাফর ইকবালকে নামিয়ে দিয়ে সিএনজি চালক বাড়ী ফেরার পথে জাফর ইকবালকে বহনকারী সিএনজি চালক আবদুল হালিমকে মোস্তফার দোকানের সামনে থেকে অপহরণ করে নিজ বাড়ীতে আটকে রাখে। বিষয়টি জাফর ইকবাল পরশুরাম থানার ওসিকে জানালে তিনি আবদুল হালিমকে বিভিন্ন স্থানে খুঁজাখুঁজি করে। একপর্যায়ে শুক্রবার ভোর সাড়ে ৪ টার দিকে বর্তমান মেম্বার ও উপজেলা আওয়ামীলীগের ত্রান ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক কাদের রাব্বানি নয়ন এর বাড়ী থেকে সিএনজি চালক হালিমকে উদ্ধার করে। শুক্রবার বিকেলে পুলিশ বর্তমান মেম্বার ও আওয়ামীলীগ নেতা নয়নকে প্রধান আসামী করে পরশুরাম থানায় মামলা করেন প্রতিদন্ধি প্রার্থী জাফর ইকবাল।

চিথলিয়া ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও ইউপি সদস্য পদপ্রার্থী জাফর ইকবাল জানান, তার সিএনজি চালক তাকে নামিয়ে দিয়ে বাড়ীতে ফেরার পথে নয়ন,স্বপনের নেতৃত্বে অপহরণ করে মারধর করে গুরতর আহত করে। পরশুরাম থানার ওসি মুঃ খালেদ হোসেন জানান প্রতিদন্ধী প্রার্থীকে সিএনজিতে উঠানোয় ক্ষিপ্ত হয়ে সিএনজি চালককে অপহরণ করার অপরাধে বর্তমান মেম্বার সহ ১০জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। ঘটনায় সম্পৃক্ত একজনকে আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। বাকী আসামীদেরকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

 

চিথলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান সদস্য ও উপজেলা আওয়ামীলীগের ত্রান ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক কাদের রাব্বানি নয়নের বক্তব্য জানতে তার মুঠোফোনে একাধিবার কল দেয়া হলেও সেটা বন্ধ পাওয়া যায়।