স্পোর্টস ডেস্কঃ- 

 

নিজ দেশের বিপক্ষে খেলা হলেও, ফাইনালে আর্জেন্টিনার জয় কামনা করছেন অনেক ব্রাজিলিয়ানরা।

ক্লাব ফুটবল ও ব্যক্তিগত ক্যারিয়ারে এমন কোনো সাফল্য বাকি নেই যা ধরা দেয়নি লিওনেল মেসির হাতের মুঠোয়। স্প্যানিশ ক্লাব বার্সেলোনার হয়ে প্রায় সব শিরোপাই জিতেছেন অন্তত দুইবার করে। ব্যক্তিগত সাফল্যের পাল্লাও বিশ্বের অন্য যেকোনো ফুটবলারের চেয়ে ভারী মেসির।

 

কিন্তু প্রসঙ্গ আসে যখন আন্তর্জাতিক ফুটবল ও জাতীয় দলের হয়ে খেলার ব্যাপারে। তখন প্রাপ্তির খাতায় শুধুই হাহাকার। ২০১৪ সালের বিশ্বকাপ ফাইনালে উঠেও চ্যাম্পিয়ন হতে পারেনি আর্জেন্টিনা। পরের দুই বছর কোপা আমেরিকার ফাইনাল থেকে ফিরতে হয়েছে খালি হাতে।

এ তিন টুর্নামেন্টেই আর্জেন্টিনার সেরা পারফরমার ছিলেন মেসি, বিশ্বকাপে জিতেছিলেন সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার গোল্ডেন বল। কিন্তু এতে কি আর শিরোপার আক্ষেপ মেটে? সেই আক্ষেপ মেটানোর মিশনে আরও একবার কোপার ফাইনালে উঠেছে মেসির আর্জেন্টিনা।

 

আগামী রোববার বাংলাদেশ সময় সকাল ৬টায় চির প্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিলের বিপক্ষে শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচটি খেলবে ১৪ বারের কোপা আমেরিকা চ্যাম্পিয়নরা। বিশ্বের অনেক ফুটবলপ্রেমীই চাইছেন অন্তত এবার যেন চ্যাম্পিয়ন হয় আর্জেন্টিনা এবং মেসি পায় ক্যারিয়ারের প্রথম আন্তর্জাতিক শিরোপা।

শুধু বিশ্বের ফুটবলপ্রেমীরাই নয়, অনেক ব্রাজিলিয়ানও বলছেন একই কথা। নিজ দেশের বিপক্ষে খেলা হলেও, ফাইনালে আর্জেন্টিনার জয় কামনা করছেন অনেক ব্রাজিলিয়ান। যদিও তাদের ওপর বেজায় চটেছেন ব্রাজিলের সেরা তারকা নেইমার। এসব মানুষদের জন্য কড়া বার্তা দিয়েছেন তিনি।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইন্সটাগ্রামে স্টোরি অপশনে নেইমার লিখেছেন, ‘আমি একজন গর্বিত ব্রাজিলিয়ান, এই পরিচয় দিতে ভালোবাসি। সবসময়ই আমার স্বপ্ন হলো ব্রাজিলের জাতীয় দলে খেলা এবং সমর্থকদের গান গাইতে শোনা। আমি কখনও ব্রাজিলের বিপক্ষে কোনোদিন সমর্থন দেইনি, যেখানে ব্রাজিল কোনোকিছুর জন্য লড়ছে।’

 

নেইমার আরও লিখেছেন, ‘সেটা হোক যেকোনো খেলা, অস্কার কিংবা যা খুশি… সেখানে যদি ব্রাজিল থাকে, তাহলে আমি অবশ্যই ব্রাজিল। আর সেসব ব্রাজিলিয়ান, যারা এর বিপরীত করছেন? আচ্ছা ঠিক আছে, তবে আমি আপনাদের সম্মান করি না।’

 

প্রসঙ্গত, সেমিফাইনাল ম্যাচে নেইমার নিজেও চেয়েছিলেন মেসির আর্জেন্টিনাই জিতুক কলম্বিয়ার বিপক্ষে। তবে সেদিন তিনি এটিও পরিষ্কার করে বলেছিলেন যে, ফাইনাল ম্যাচে ব্রাজিলের জয়ব্যতীত আর কিছুই ভাববেন না তিনি।