নিজস্ব প্রতিনিধিঃ- 

 

আসন্ন ঈদকে সামনে রেখে ফেনীর ছাগলনাইয়া উপজেলার জমাদ্দার বাজারের প্রতিটি মার্কেটে রয়েছে ক্রেতা সাধারণের ভিড়। জামা কাপড়ে যেন দামের আগুন ধরেছ হউক না সেটা ২ বছরের বাচ্চার কিংবা ১৮ বছরের যুবক অথবা ৬০ বছরের বৃদ্ধার। হাত দিলেই দাম হাকায় দোকানীরা এ যেন এক মগের মুল্লুক যে জামা গত রমজানে ৮০০ শত টাকা এ বছর সেটার দাম হাঁকাচ্ছেন ১৮০০ শত টাকার অধিক এক্ষেত্রে বিপাকে ক্রেতা সাধারণ।

আর অন্যদিকে বাজারে নেই কোন পুরুষ ক্রেতা পুরো বাজার মহিলাদের দখলে হউকনা সেটা কাপড় দোকান কিংবা মুদি-দোকান অথবা ঔষধের দোকান। মহিলার ভিড়ের অবস্থা দেখলে কল্পনা করাও যেন অসম্ভব করোনা নামক এই মহামারী বাংলাদেশে কোথাও আছে। এক দিকে চলছে লকডাউন চলছেনা দুরপাল্লার কোন গাড়ী তারপরও মার্কেট গুলোতে চলছে মানুষের প্রচন্ড ভিড়, ধাক্কাধাক্কি নেই কোন সামাজিক দূরত্ব নেই মুখে মাস্ক।

এমতাবস্থায় যদি কোন মোবাইল র্কোট পরিচালনায় প্রশাসনের লোকজন মার্কেটে ডুকে তাৎক্ষণিক বিক্রেতা ও ক্রেতা সাধারণ উভয়ের যেন আকাশচুম্বী মনেকষ্ট। এসময় সরেজমিনে গিয়ে বিশেষ প্রতিনিধি দ্বারা ক্রেতাদের ভাবমূর্তি জানতে চাইলে অনেককেই বলতে শুনা যায়, ”আমাদের জন্য সরকারের যেন কোন মায়া নাই, বার বার লকডাউন দিচ্ছে।”

অপর দিকে আমরা যদি আমাদের পার্শ্ববর্তী রাষ্ট্র ভারতের বর্তমান অবস্থা একটু মাথায় নিয়ে চিন্তা করি তাহলে বিষয়টা কি দাড়ায়.! এছাড়া নিজের পরিবারের কথা এবং দেশের কথা চিন্তা করি তা হলে বর্তমান পরিস্থিতিতে তো ঘর থেকেও বাহির হওয়ার কথা নয়। সারাবিশ্বকে করোনা নামক এই মহামারী লন্ড বন্ড করে দিয়েছে নষ্ট করে দিয়েছে শিক্ষাখাত, কেড়ে নিয়েছে লাখো মানুষের জীবন, আশংঙ্কায় আছে আজও মুমূর্ষু রোগীর জীবন।

তাই আমাদের উচিত সরকারের সকল আদেশ মেনে চলার। এখনও বাকী যে কয়েকটা দিন আছে এই সময় টা তে একটু চেষ্টা করুন ঈদের শপিং নিয়ে ব্যস্ত না হয়ে নিজের জীবন ও পরিবারের জীবন বাঁচানোর। সর্বোপরি আমাদের দেশটাকে বাঁচাই।