টাইমস বাংলা নিউজ ডেস্ক :-

১৬ মার্চ ফেনীর দাগনভূঞা উপজেলার পোঃ তালতলী ও জগতপুর গ্রামের সুনীল চন্দ্র দাস ও বিউটি রানী দাসের মেয়ে পূজা রানী দাস বর্তমানে (মোসাম্মদ রাইসা রিপন) ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন।

গত ২১ ফেব্রুয়ারি ঠাকুরগাঁও নোটারি পাবলিক কর্তৃক এফিডেভিট স্ট্যাম এ উল্লেখ করেছে যে, আমি ধর্মীয় প্রতিজ্ঞা পূর্বক ঘোষণা করিতেছি যে, আমি প্রাপ্তবয়স্ক সাবালক ব্যক্তি আমার নিজের ভবিষ্যত জীবন সম্পর্কে ভাল-মন্দ বুঝার যথেষ্ট জ্ঞান আমার আছে । ইহা আমার জ্ঞান ও বিশ্বাস মতে ইসলাম সত্য। সনাতন হিন্দু ধর্মের আচার, অনুষ্ঠান, রীতিনীতি আমার কাছে ভালো লাগে না। পাশাপাশি ইসলাম ধর্মের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে জীবন যাপন রীতিনীতি সামাজিক জীবন আমার নিকট ভালো লাগে। সেই হিসেবে আমি ইসলাম ধর্মের প্রতি আকৃষ্ট হইয়া পড়ি এবং ইসলাম একটি পূর্ণাঙ্গ জীবনবিধান হইতেছে মর্মে ইসলাম ধর্ম গ্রহণের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করি। ইহা আমার জ্ঞান ও বিশ্বাস মতে সত্য।

আমি প্রতিজ্ঞা পূর্বক আরো ঘোষণা করিতেছি যে আমি ইসলাম ধর্ম গ্রহণ সিদ্ধান্তের পর স্থানীয় মৌলভী সাহেবের মাধ্যমে শিক্ষা নিয়ে মুখে কলেমা তাইয়েবা (লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু মুহাম্মাদুর রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) এক আল্লাহকে মুখে স্বীকার করিয়া অন্তরে বিশ্বাস স্থাপন করিয়া ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছি।

আমার নাম পূজা রানী দাস ত্যাগ করিয়া ইসলাম ধর্মের নতুন নাম মোসাম্মদ রাইসা রিপন গ্রহণ করেছি। এখানে আমি সর্বত্র মুসলিম হিসেবে মোহাম্মদ রাইসা রিপন নামে পরিচিত হইবো এবং আমার যাবতীয় কাগজপত্র নাম পরিবর্তন করেছি।

 

টিবিএন/ আইএইচএস