নিজস্ব প্রতিবেদক :- 

ফেনীর পরশুরাম উপজেলায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী ২০২১ ইং উপলক্ষে আলোচনা সভা ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

উক্ত আলোচনাসভা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন পরশুরাম উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান কামাল উদ্দিন মজুমদার। পরশুরাম উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ইয়াছিন শরিফ মজুমদার’র সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে অডিও কনফারেন্স’র মাধ্যমে বক্তব্য রাখেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সাবেক ফ্রটোকল অফিসার, সাবেক সদস্য আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্য নির্বাহী কমিটি, ফেনী জেলা আওয়ামী লীগের রাজনৈতিক অভিভাবক ও শান্তির প্রতীক আলাউদ্দিন আহমেদ চৌধুরী নাসিম। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ফেনী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান খায়রুল বাশার মজুমদার তপন, এছাড়াও বক্তব্য রাখেন যার পৃষ্ঠপোষকতায় এতো বড় আয়োজন পরশুরাম উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌরসভার সফল মেয়র নিজাম উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী সাজেল, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান এনামুল করিম মজুমদার বাদল, মির্জানগর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান নুরুজ্জামান ভুট্টা।

উক্ত অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বক্সমামুদ ইউনিয়ন চেয়ারম্যান জাকির হোসেন চৌধুরী, চিথলিয়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান জসিম উদ্দীন বুজ্জা, পরশুরাম উপজেলা ছাত্রলীগ, যুবলীগ, কৃষক লীগ, শ্রমিক লীগ, উপজেলা আওয়ামী লীগ এবং আওয়ামী লীগের আরো অঙ্গ সংগঠন ও মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাবৃন্দ সহ প্রমুখ।

পরশুরাম পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী সাজেলের সার্বিক পৃষ্ঠপোষকতায় ও তত্ত্বাবধানে জন্মশত বার্ষিকীকে পরশুরামের ইতিহাসে স্বরনীয় করে রাখতে যথাযোগ্য মর্যাদা ও উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে বর্ণাঢ্য আয়োজনে অনুষ্ঠান সম্পন করা হয়েছে।

দিবসটি উপলক্ষে সকালে উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে নব নির্মিত বঙ্গবন্ধু প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা অর্পণ করা হয়েছে। উপজেলা খোকা মিয়া মিলনায়তনে কুরআন খতম করা হয়েছে এবং দোয়া ও মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে।

এছাড়াও দুপুরে পরশুরাম পাইলট স্কুল মাঠে বর্ণাঢ্য আয়োজন বিকেলে প্রতিটি ওয়ার্ড, ইউনিয়ন, পৌর আওয়ামী লীগ সহ বিভিন্ন অংঙ্গ সংগঠন পৃথক পৃথক ভাবে মুজিব কোর্ট পড়ে কেক কাটা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

এরপর বাংলাদেশ – ভারত এ নামকরা শিল্পীদের পরিবেশনায় মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান’র আয়োজন করা হয়েছে। এছাড়াও সুকুমার, আশিক, মিম সহ ঢাকা ও চট্রগ্রামের বিখ্যাত খ্যাতিমান সংগীত শিল্পীরা মনোমুগ্ধকর পরিবেশনা করেন।

আয়োজক কমিটির সাথে সম্পৃক্ত এম সফিকুল হোসেন মহিম ও জমির উদ্দিন ভাবন জানান, বঙ্গবন্ধু জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে শুধু পৌরভবন নয় গোটা পরশুরাম বাজারকে আলোকসর্জ্জা করা হয়েছে। শুধুমাত্র পাইলট স্কুল মাঠে রয়েছে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৫ শতাধিক ফেস্টুন, ব্যানার, ৩০ ফুট – ৬০ফুটের বিশাল মঞ্চ। অনুষ্ঠান স্থলকে সৌন্দর্যবন্ধন করেছে ফেনীর অন্যতম ঘাসফড়িং ইভেন্টস।

পরশুরাম পৌরসভা মেয়র সাজেল তাঁর বক্তব্য বলেন – “জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আমাদের প্রেরণার উৎস। তাঁর কর্ম ও আদর্শ চিরকাল আমাদের মাঝে বেঁচে থাকবে।”

তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু কেবল বাঙালি জাতির নন, তিনি বিশ্বনেতা, তিনি আমাদের স্বাধীনতার প্রতীক, মুক্তির দূত। জাতির পিতার অসাম্প্রদায়িক, ক্ষুধা-দারিদ্র্যমুক্ত ও সুখী-সমৃদ্ধ স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গড়ে তুলতে আগামী প্রজন্মকে বঙ্গবন্ধুর চেতনাকে ধারন করার জন্য অনুরোধ করেন।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি তাঁর বক্তব্যে বলেন- “এতো বড় আয়োজন করার জন্য আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র নিজাম উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী সাজেলকে অশেষ ধন্যবাদ। পরশুরাম উপজেলা ছাত্রলীগ, যুবলীগ, কৃষকলীগ, শ্রমিকলীগ এবং আওয়ামীলীগ আগের থেকে অনেক বেশী শক্তিশালী তাঁর একমাত্র অবদান নিজাম উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী সাজেল।আলাউদ্দিন নাসিম ভাইয়ের একজন পরিক্ষীত কর্মী হয়ে নিজেকে অনেক ধন্য মনে করি। কারণ একজন সাধারণ কর্মী থেকে আজ পরশুরাম উপজেলা সর্বোচ্চ স্থানে আসন পেয়েছি। বিরোধী দল ক্ষমতায় থাকা অবস্থায় অনেক ঝড় তুফান এসেছে। তখন একমাত্র বটগাছ হিসেবে ছায়া দিয়েছেন আমার অভিভাবক আলা উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী নাসিম ভাই। আমার আর চাওয়া-পাওয়া কিছুই নেই। নিজের জন্য সবার কাছে দোয়া কামনা করে বক্তব্য শেষ করেন এই আওয়ামী সভাপতি।

 

টিবিএন/ আইএইচএস