রাজশাহী (জেলা) প্রতিনিধি :-

 

রাজশাহীর দুর্গাপুরে পুকুরে মাছ ধরতে নেমে পানিতে ডুবে সাগর নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে।দুর্গাপুর উপজেলার পানানগর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৪র্থ শ্রেনীর ছাত্র। পানানগর গ্রামের পূর্বপাড়া রইচ উদ্দীন কাজীর ছেলে সাগর কাজী (১০)।

প্রতিবেশী ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, দুর্গাপুর উপজেলার পানানগর ইউনিয়নে পানানগর গ্রামের পূর্বপাড়া আব্দুল আজিজ নামের এক ব্যাক্তি ২ মে রবিবার সকালে তাঁর নিজ পুকুরে মাছ ধরার জন্য বিষ প্রয়োগ করে।

বিষ প্রয়োগের পর পুকুরে জাল দিয়ে মাছ ধরে নিয়ে চলে যায় পুকুর মালিক আব্দুল আজিজ মোল্লা। এরপর প্রতিবেশীরা বিষ প্রয়োগকৃত পুকুরে মাছ ধরার জন্য কেউ জাল নিয়ে কেউ খালিহাতে মাছ ধরার জন্য পুকুরে নামে।

পাড়া প্রতিবেশীদের দেখে রইচ উদ্দীন কাজীর দুই জমজ সন্তান পুত্র সাগর (১০) ও কন্যা সাথী খাতুন (১০) পুকুরে মাছ খুজতে নামে। দুই ভাইবোন পুকুরে খুঁজতে গিয়ে কয়েকটি মাছও পায়। সে মাছগুলো বাড়ীতে রেখে আসতে যায় বোন। এরই মধ্যে অতল গভীর পুকুরের মাছ খুজতে পুকুরের মাঝে নেমে যায় সাগর। এরপর অন্যান্য প্রতিবেশীরা পুকুরে ডুব দিয়ে কাঁদার মধ্যে মাছ খুঁজতে থাকলে সাগরের শরীর হাতের সাথে বাঁধে।

পরে পুকুরে মাছ ধরতে নামা অন্যান্যদের সহযোগীতায় ডুবে থাকা শিশুটিকে ওপরে তুলে দেখে প্রতিবেশী রইচ উদ্দিনের পুত্র সাগর। পরে তাঁকে দ্রুত দুর্গাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে আশা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।শিশু সাগরের মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

এবিষয়ে দুর্গাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হাশমত আলী জানান, বিষয়টি শুনেছি এ ঘটনায় দুর্গাপুর থানায় অপমৃত্যু মামলা হবে।