বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি :- 

 

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) আন্দোলনরত শিক্ষকদের পক্ষ থেকে জানমালের হুমকি ও ক্ষতির আশঙ্কা প্রকাশ করে থানায় সাধারণ অভিযোগ (জিডি) দায়ের করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় প্রশাসন ইনস্টিটিউটের প্রভাষক এটিএম শাহেদ পারভেজ।

বুধবার (০৫ মে ) রাত সাড়ে নয়টার দিকে নগরীর মতিহার থানায় এ সাধারণ ডায়েরি করেন। শাহেদ পারভেজ রাবি উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহানের জামাতা।

জিডির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মতিহার থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) ও ডিউটি অফিসার মোস্তফা কামাল।

মতিহার থানায় দায়ের করা জিডিতে শাহেদ পারভেজ উল্লেখ করেন, ‘আমি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় প্রশাসন ইনস্টিটিউট (আইবিএ) একজন শিক্ষক এবং রাবির প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজের সদস্য। গত ৪ মে বিশ্ববিদ্যালয়ের কলাভবনের সামনে রাবির দুর্নীতিবিরোধী শিক্ষকবৃন্দের ব্যানারে কিছু স্বার্থান্বেষী শিক্ষক প্রকাশ্যে দিবালোকে বিভিন্ন ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সামনে আমার বিরুদ্ধে রাবির সিনেট ভবনের তালা ভেঙে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ কাগজপত্র চুরির মিথ্যা, বানোয়াট, ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত অভিযোগ উত্থাপন করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে গত ৪ মে বিকাল থেকে ৫ মে পর্যন্ত বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় আমার বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশিত হয়।’

রাবির দুর্নীতিবিরোধী শিক্ষকবৃন্দের ব্যানারে আন্দোলনরত প্রতগিশীল শিক্ষক সমাজের সদস্যদের বিপথগামী ও স্বার্থান্বেষী উল্লেখ করে আরও বলা হয়, ‘কতিপয় শিক্ষকের ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত অভিযোগে মিথ্যা ও বানোয়াট সংবাদ প্রকাশিত হওয়ায় আমারসহ সমগ্র শিক্ষক সমাজের সম্মানহানি ঘটেছে। এছাড়া প্রকাশ্য দিবালোকে আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে। তাই আমি ভবিষ্যতে ষড়যন্ত্রকারী, এবং মিথ্যা, বানোয়াট অভিযোগকারীদের দ্বারা আমার জানমালের ওপর হুমকি ও ক্ষতির আশঙ্কা করছি।’

সার্বিক বিবেচনায় আবেদনটি সাধারণ ডায়েরি হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করার অনুরোধ জানানো হয়।

প্রসঙ্গত, গত ২ মে ফাইন্যান্স কমিটির সভা আটকে দিতে উপাচার্য ভবন, প্রশাসন ভবন ও সিনেট ভবনে তালা দেন ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা। সভা স্থগিত করা হলে উপাচার্য ভবনের তালা খুলে দেওয়া হয়। গত ৪ মে দুপুরে সংবাদ সম্মেলন করে দুর্নীতি বিরোধী শিক্ষকরা দাবি করেন, ৩ মে রাতে সিন্ডিকেটের তালা ভেঙে গোপনে নথি চুরি করেছেন উপাচার্যের জামাতা ও আইবিএ’র শিক্ষক এটিএম শাহেদ পারভেজ। ওই সময়ে শাহেদ পারভেজের কোনও বক্তব্য পাওয়া যায়নি। অবশেষে ৫ মে তিনি জানমালের ক্ষয়ক্ষতি আশঙ্কা করে জিডি করলেন।