নিজস্ব প্রতিনিধি :-

 

ফেনীর সোনাগাজী উপজেলার সুজাপুর রহমানীয়া মাদ্রাসার তৃতীয় শ্রেনীর এক (৯) ছাত্রীকে ধর্ষন চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই ছাত্রীর মায়ের অভিযোগের ভিত্তিতে সোমবার দুপুরে মাদ্রাসা থেকে শিক্ষক জামাল উদ্দিনকে আটক করেছে সোনাগাজী থানা পুলিশ। সে ভোলা জেলার দৌলতখান উপজেলার বাসিন্দা।

 

নির্যাতিত ছাত্রীর মা জানায়, শনিবার (২৬জুন) দুপুরে দোতলায় একটি কক্ষে ডেকে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষনের চেষ্টা চালায় আরবি শিক্ষক জামাল উদ্দিন। তার শোরচিৎকার শুনে মাদ্রাসা শিক্ষক ইসমাইল তাকে ছুটি দিয়ে বাড়ী পাঠায়। অসুস্থ্য অবস্থায় বাড়ীতে গিয়ে বিষয়টি তাকে জানানোর পর তিনি মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাস্টার নিজাম উদ্দিনকে অবহিত করেন।

 

পরদিন রোববার সালিশী বৈঠকে রফাদফা করতে উভয় পক্ষের কাছ থেকে বিশ হাজার টাকা করে মোট চল্লিশ হাজার টাকা চাঁদা নেয় সমাজপতি সাবেক সোনাগাজী সদর ইউপি সদস্য মিজানুর রহমান ও সাহাব উদ্দিন। পরে তারা বিষয়টি মীমাংসা হয়ে গেছে বলে ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করেন।

 

সোনাগাজী মডেল থানার ওসি সাজেদুল ইসলাম জানান, ওই ছাত্রীর মা বাদী হয়ে মাদ্রাসা শিক্ষক জামাল উদ্দিনকে আসামী করে সোমবার দুপুরে মামলা করেন। এদিন দুপুরে মাদ্রাসা থেকে অভিযুক্ত শিক্ষক জামাল উদ্দিনকে গ্রেফতার করা হয়। ওসি আরো জানান, রফাদফার নামে যারা টাকা নিয়েছে তাদের বিরুদ্ধে আইননুসারে ব্যবস্থা নেয়া হবে।