সোনাগাজী (ফেনী)প্রতিনিধিঃ-

সোনাগাজীতে চিহ্নিত ভূমিদস্যু মো. সোলায়মান’র বিরুদ্ধে মানববন্ধন করেছেন ক্ষতিগ্রস্ত ভূমি মালিকগণ।

শুক্রবার বিকালে উপজেলার চর সাহাপুরে আঞ্চলিক মহাসড়কে উক্ত মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।মানববন্ধনে উপস্থিত ক্ষতিগ্রস্ত মালিকগণ তাদের ভুমি উদ্ধারে জেলা প্রশাসকের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

মানববন্ধনে ভুমি মালিক মাস্টার রফিকুল হক বলেন, ১৯৮৭সালে মুহুরী রেগুলেটর হওয়ার পর থেকে অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা মো. সোলায়মান পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রায় ১০একর জমি দখল করে মৎস্য খামার তৈরী করেন। এর পর থেকে আশপাশের ভুমি মালিকদের জমি চলেবলে কৌশলে দখল করেন তিনি। আমার এক একর জমি সে জবর দখল করেছেন। আদালতে একাধিক মামলায় পরাজিত হওয়ার পরও সে দখল ছাড়েনি।

 

আবদুল হক বাবুল নামে এক ভূমি মালিক বলেন, সোলায়মান একজন চিহ্নিত ভূমিদস্যু । সে দিঘী খননের সময় আমার দেড় একর জমি দখল করেছে। ভুয়া দলিল সৃজন করে উল্টো আমাকে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করেছেন।

 

ফরিদ মহাজন নামে ক্ষতিগ্রস্ত এক ভূমি মালিক বলেন, আমার পৈত্রিক দুই একর ৬৪শতক ২০০৪সালে রাতের আঁধারে দখল করে নেয় চিহ্নিত ভূমিদস্যু সোলায়মান। এ ব্যপারে কয়েকটি মামলা আদালতে বিচারাধীন। ভুমি মালিক ও সংবাদকর্মী গাজী হানিফ বলেন, আমাদের পৈত্রিক জমিতে বসতবাড়ি নির্মান করে ভোগ দখলে আছি। হঠাৎ রাতের আঁধারে গাছ লাগিয়ে দখলের পায়তারা করছেন। তার বিরুদ্ধে পানি উন্নয়ন বোর্ড ও সরকারি মৎস্য খামারের ১০একর জমি দখলের অভিযোগ রয়েছে।

 

একই ভাবে আবদুল হক, শফি উল্যাহ, নজরুল ইসলাম, আলমগীর হোসেন মেম্বার, বজলের রহমান, এম নাছির উদ্দিন, মো. খোকন, শাহানা আক্তার নামের ভুমি মালিকদের জমি সে দখলে রেখেছে।

 

স্থানীয় কয়েকজন কৃষক জানান, দীর্ঘদিনের চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে দিয়েছেন ভূমিদস্যু সোলায়মান। এতে তাদের যাতায়াতে সমস্যা হয়।

 

এ ব্যাপারে পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মো. নুরুন্নবী জানান, পাউবো সরকারি মৎস্য প্রকল্পের জন্য প্রায় ৩৬একর ইজারা দিয়েছে। এর বাহিরে জনগনের চলাচলের সুবিধার্থে একর জমি রাখা হয়েছে । সেখানে পাউবো সড়ক নির্মান করেছে, সেই সড়ক দখল করা বেআইনি।

 

অভিযোগ অস্বীকার করে মেজর (অবঃ) মো. সোলায়মান বলেন, আমি ক্রয়কৃত ও ইজারাকৃত ৭০একর জমিতে এগ্রো খামার করেছি। কোন অভিযোগ কারীর জমি আমার দখলে নেই । তবে মাস্টার রফিকুল হকের সাথে এক একর জমির বিরোধ আছে। বিরোধের ঘটনায় উচ্চ আদালতে মামলা বিচারাধীন। পাউবোর জমি আমি বৈধ উপায়ে ইজারা নিয়েছি। তাদের কোন অভিযোগ নেই।