নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

সারা দেশের ন্যায় ফেনীর ছাগলনাইয়াতেও আগামীকাল ভোর ৬টায় থেকে ১১ এপ্রিল রাত ১২টায় পর্যন্ত লকডাউনের ঘোষণা দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন। নিজের ও পরিবারের সদস্যদের জীবনের নিরাপত্তার জন্য লকডাউন সফল করতে উপজেলাবাসীর সহযোগীতা চেয়েছেন ছাগলনাইয়া উপজেলা আওয়ালীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান মেজবাউল হায়দার চৌধুরী সোহেল।
উপজেলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাজিয়া তাহের’র সভাপতিত্বে লকডাউন সফল করতে জুরুরী বৈঠকের আয়োজন করা হয়। উক্ত বৈঠকে আরো উপস্থিত ছিলেন, ছাগলনাইয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ, উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প. কর্মকর্তা সিহাব উদ্দিন রানা, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বিবি জুলেখা শিল্পী, উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মোমেনা বেগম,  পাঠাননগর ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল হায়দার চৌধুরী জুয়েল, মহামায়া ইউপি চেয়ারম্যান গরীবশাহ হোসেন বাদশা চৌধুরী, ঘোপাল ইউপি চেয়ারম্যান আজিজুল হক মানিক, রাধানগর ইউপি চেয়ারম্যান রবিউল হক চৌধুরী, কাউন্সিলর মুন্সী নুর হোসেন, হাবিবুর রহমান হাবিব, কামাল উদ্দিন পাটোয়ারী খোকন, শুভপুর  ইউপির প্যানেল চেয়ারম্যান মাষ্টার আবুল কালাম, ছাগলনাইয়া প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম চৌধুরী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কাজী নুরুল আলম নিলু, দপ্তর সম্পাদক, বঙ্গবন্ধু ব্লাড ব্যাংক ছাগলনাইয়া’র সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা যুবলীগের সহ-সম্পাদক সাংবাদিক মোঃ এনায়েত উল্যাহ সোহেল প্রমুখ।
উক্ত বৈঠক থেকে সরকারের গৃহিত সিদ্ধান্তসমূহ বাস্তবায়ন করার জন্য সবাইকে দায়িত্ববান হওয়ার  জন্য আহবান জানান উপজেলা প্রশাসন। কেউ যদি সরকারে এই সিদ্ধান্ত অমান্য করে এবং মাস্ক ব্যবহার না করে তাহলে তাকে তাৎক্ষনিক আইনের আওতায় আনা হবে বলে কঠোর হুশিয়ারি দেন বৈঠকের প্রধান অতিথি মেজবাউল হায়দার চৌধুরী সোহেল।
  • সিদ্ধান্তগুলো হলো ৫ এপ্রিল ভোর ৬টা থেকে ১১ এপ্রিল রাত ১২টা পর্যন্ত লকডাউন।

  • সন্ধ্যা ৬টা থেকে ভোর ৬টা পর্যন্ত বাড়ির বাইরে যাওয়া যাবেনা।

  • ১ সপ্তাহের লকডাউনের আনুষ্ঠানিক প্রজ্ঞাপন জারি।

  • কাঁচাবাজার খোলা থাকবে সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত।

  • লকডাউনে ব্যাংকিং ব্যবস্থা সীমিত পরিসরে চলবে।

  • হোটেল রেস্তোঁরায় খাবার গ্রহণ নিষিদ্ধ।

  • সব ধরনের গণ পরিবহন বন্ধ থাকবে।

  • উপজেলার ৫৪টি ওয়ার্ডের জন্য ৫৪সিএনজি জুরুরী কাজে নিয়োজিত থাকবে।