আবদুল মন্নান: ফেনীর পরশুরামের দক্ষিণ বাউরপাথর এলাকার কিল্লাপাড়ায় দীর্ঘদিনের জমি সংক্রান্ত বিরোধে একই পরিবারের চারজন’কে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছে প্রতিবেশী প্রভাবশালী বেলাল হোসেন ও পরিবারের সদস্যরা।

গত ২০ এপ্রিল(মঙ্গলবার) সন্ধ্যায় দীর্ঘদিনের জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে ঘটনার দিন মঙ্গলবার গরুর ঘাস খাওয়া’কে কেন্দ্র করে দক্ষিন বাউরপাথর এলাকার দিনমজুর আলি মিয়া,তার স্ত্রী,ছেলে ও পুত্রবধু’কে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছে একই এলাকার প্রভাবশালী বেলাল হোসেন ও তার পরিবারের সদস্যরা।

আহতদের মধ্যে আলি মিয়ার ছেলে ও পুত্রবধু’র অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাদের ফেনী সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ভুক্তভোগী মোঃ আলি মিয়া জানান, বেলাল হোসেনের সাথে দীর্ঘদিন ধরে আমাদের বসতভিটা নিয়ে বিরোধ চলছে। গত একশো বছর ধরে বসবাসরত আমার বাপ-দাদার বসতভিটা তারা তাদের বলে দাবি করছে। এনিয়ে বেলালের পরিবারের সাথে আমাদের পারিবারিক বিরোধ চলছিল।

কয়েকবার আমাদের নামে মামলা ও করেছে সে।কিন্তু জমিজমার দলিলপত্র ঠিক থাকায় প্রত্যেকবারেই আমাদের পক্ষে রায় দিয়েছে আদালত।

আর সেই ক্ষোভেই গত ২০ এপ্রিল(মঙ্গলবার) বেলাল হোসেনের পালিত গরু আমাদের কেটে রাখা গরুর ঘাস খেয়ে ফেলায় আমার স্ত্রীর সাথে বেলাল হোসেনের স্ত্রীর কথা কাটাকাটি হয় এবং এক পর্যায়ে বেলাল হোসেন ও তার পরিবারের ৫-৬জন মিলে আমার স্ত্রী,ছেলে ও পুত্রবধু’কে লাঁঠিসোটা দিয়ে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে গুরুতর আহত করে।এসময় আমি উদ্ধার করতে গেলে আমাকেও লাঠি দিয়ে পিটিয়ে আহত করে।

আমার পুত্রবধুর হাত ভেঙ্গে দেওয়ায় এবং আমার ছেলের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় ছেলে,পুত্রবধু ও আমার স্ত্রী’কে ফেনী সদর হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। আমি এর সঠিক বিচার দাবী করছি।