সোনাগাজী প্রতিনিধি :-
ফেনী জেলার সোনাগাজী উপজেলার আমিরাবাদ ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের বলি বাড়িতে জমি জমার বিরোধ নিয়ে সংঘর্ষ আহত হয়ে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। উক্ত ঘটনায় সোনাগাজী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। সোনাগাজী মডেল থানা পুলিশ ৩ জন আসামকে আটক করেন।
মামলার বাদী নুরুন নেছা লাইলী বলেন, আব্দুল হক, হোসেন আহমদ, আহসান উল্লাহ মিন্টু, জসিম উদ্দিন, হাজিরা খাতুন, নুরজাহান এদের সাথে বাড়িতে আমাদের জায়গা জমি নিয়ে দীর্ঘদিন বিরোধ চলছে। জমিটি দীর্ঘদিন আমাদের দখলকৃত রয়েছে এবং কিছুদিন আগে আমরা উক্ত জমিতে সরিষা চাষ করি গত ২৪/৩/২০২২ ইং তারিখে আমরা আমাদের সরিষা খেত দেখতে গেলে বিবাদী সবাই মিলে আমাদের পথ রোধ করে এলোপাতাড়ি মারপিট শুরু করে। অতর্কিত হামলা চালায় এবং চাপাতি দিয়ে মাথায় এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকে, আমরা মাটিতে লুটিয়ে পড়লে তারা পা দিয়ে গলায় শ্বাসরোধ করে হত্যার উদ্দেশ্যে।
এ সময় তারা আমাদের কাপড় চোপড় খুলে শ্রীলতাহানি চেষ্টা করে। পরবর্তীতে আমাদের শোরগোল চিৎকার শুনে বাড়ির ও আশেপাশের সকলে এগিয়ে এসে আমাদেরকে রক্ষা করে। এরই মধ্যে আমরা শারীরিকভাবে অনেক ক্ষতিগ্রস্থ হই। এই সময় আমাদের গলা থেকে স্বনের চেইন লুট করে নিয়ে যায়। বর্তমানে আমরা চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুর প্রহর গুনছি।সোনাগাজী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয় মামলা নাম্বার ২১।
সোনাগাজী থানার অফিসার ইনচার্জ তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নিলে আসামিপক্ষের তিনজনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় এবং কোর্টে প্রেরণ করেন।
৯নং নবাবপুর ইউনিয়ন এর ৩নং ওয়ার্ড নাজিরপুর থেকে নব নির্বাচিত মেম্বার ওমর ফারুক বলেন, ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে সোনাগাজী মডেল থানা অফিসার্স ইনচার্জ যুগোপযোগী এবং কঠোর অবস্থান নেয়ায় সহজে আসামিদের গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। এজন্য আমি সোনাগাজী মডেল থানা সকল কর্মকর্তা সহ সকলকে আমার ব্যক্তিগত পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানাই। তবে পরবর্তীতে যেন তার সঠিক বিচার পায় এই আশা করি।