জাতীয় ভিটামিন এ+ ক্যাপসুল নিয়ে ছাগলনাইয়া জিরো পয়েন্টে ক্যাম্পেইন করবে বঙ্গবন্ধু ব্লাড ব্যাংক ছাগলনাইয়া’র সদস্যরা। এ তথ্য জানিয়েছেন  সংগঠনের সভাপতি কাউন্সিলর কামাল উদ্দিন পাটোয়ারী খোকন ও সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক মোহাম্মদ এনায়েত উল্যাহ সোহেল। এ সময় তারা আরো জানান,
জাতীয় ভিটামিন এ+ খাওয়ানো কর্মসূচী- ২০২১কে সফল করার লক্ষ্যে ‘বঙ্গবন্ধু ব্লাড ব্যাংক ছাগলনাইয়া’র উদ্যোগে ছাগলনাইয়া বাজারে জিরো পয়েন্টে ৫ জুন শনিবার সকাল ৯টায় থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত ছাগলনাইয়া জিরো পয়েন্টে ভিটামিন এ+ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে (ইনশাআল্লাহ)।
 
আপনারা যারা বাজারে আসবেন, অবশ্যই অবশ্যই আপনাদের সাথে থাকা ৬মাস থেকে ৫৯মাস বয়সী শিশুদের আমাদের ক্যাম্পেইনে এসে এই ভিটামিন এ+ ক্যাপসুল খাওয়াবেন।
 
৬মাস থেকে ১১মাস বাচ্চাদের একটি নীল রঙের ক্যাপসুল, আর ১২মাস থেকে ৫৯মাস বয়সী বাচ্ছাদের একটি লাল রঙের ক্যাপসুল খাওয়াবেন।
 
মনে রাখবেন, ভিটামিন এ+ শিশু মৃত্যুর ঝুঁকি কমায়, শিশুদের অন্ধত্ব থেকে রক্ষা করে, শিশুদের সঠিকভাবে বেড়ে উঠতে সহায়তা করে। তাই জাতীয় এই কর্মসূচী খুবই গুরুত্বপূর্ণ।
 
এ বছর উক্ত ক্যাম্পেইনটি ৫জুন থেকে ১৯ জুন পর্যন্ত চলবে। ৫জুন শনিবার উক্ত ক্যাম্পেইনটি ছাগলনাইয়া জিরো পয়েন্টে অনুষ্ঠিত হবে। বাদ বাকী ৬জুন থেকে ১৯জুন পর্যন্ত ছাগলনাইয়া ডিজিটাল কম্পিউটারে সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত যে কোন সময়ে আপনাদের বাচ্ছাদের নিয়ে এসে ভিটামিন এ+ ক্যাপসুলটি খাওয়াতে পারবেন।
 

ধন্যবাদান্তে

সভাপতি/ সম্পাদক
বঙ্গবন্ধু ব্লাড ব্যাংক ছাগলনাইয়া,
ফেনী।
যে কোন প্রয়োজনে কল করুন:
01818-633768
01813-996976
ভিটামিন এ+ ক্যাপসুল নিয়ে বঙ্গবন্ধু ব্লাড ব্যাংক'র সদস্যরা থাকবে ছাগলনাইয়া জিরো পয়েন্টে

ভিটামিন এ+ ক্যাপসুল নিয়ে বঙ্গবন্ধু ব্লাড ব্যাংক’র সদস্যরা থাকবে ছাগলনাইয়া জিরো পয়েন্টে

উল্লেখ্য যে, এই বছর ফেনীতে ২ লাখ ৪১ হাজার ৪শ ৮৮শিশুকে খাওয়ানো হবে ভিটামিন এ ক্যাপসুল। এর মধ্যে ৬-১১ মাস বয়সী ২৯ হাজার ১শ ৬১ শিশুকে একটি নীল রংয়ের ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। ১২-৫৯ মাস বয়সী ২ লাখ ১২ হাজার ৩শ ২৭ শিশুকে একটি লাল রংয়ের ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।
আগামীকাল ৫ জুন থেকে ১৯ জুন ফেনীতে জাতীয় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত হবে। সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত স্বাস্থ্যকেন্দ্র খোলা থাকবে বলে জানান জেলা সিভিল সার্জন ডাঃ রফিক উস্ সালেহীন।
তিনি আরো জানান, এইবার ফেনী জেলায় মোট অস্থায়ী ১ হাজার ২শ ৪৮ ও স্থায়ী ৪৭ টি কেন্দ্রে ২ লাখ ৪১ হাজার ৪শ ৮৮ শিশুকে ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে ও দুই সপ্তাহব্যাপী এই কার্যক্রম চলবে যাতে কোন শিশু বাদ না পড়ে। সিভিল সার্জন অফিসের আয়োজনে গতকাল বুধবার দুপুরে জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষে সাংবাদিক ওরিয়েন্টেশন কর্মশালায় সিভিল সার্জনের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়।
কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন জেলা সিভিল সার্জন ডাঃ রফিক উস্ সালেহীন। কর্মশালায় জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সিভিল সার্জন কার্যালয়ের মেডিক্যাল অফিসার ডাঃ ইসতাব রাকিন। সিভিল সার্জন ডাঃ রফিক উস্ সালেহীন জানান, শিশুর বয়স ৬ মাস পূর্ণ হলে শিশুকে মায়ের দুধের পাশাপাশি ঘরে তৈরি সুষম খাবার খাওয়ানোর জন্য পুষ্টি বার্তা প্রচার করা হবে।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার লক্ষ্যে সরকারের বিভিন্ন সংস্থা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। আজকে যারা শিশু তারাই আগামীতে ভিশন ২০৪১ বাস্তবায়ন করবে। এ জন্য আজকের শিশুরা যাতে সুস্থ সবলভাবে বেড়ে উঠতে পারে সেদিকে খেয়াল রাখা আমাদের কর্তব্য। ভিটামিন এ শুধুমাত্র রাতকানা রোগ প্রতিরোধ নয় বরং শিশুর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়, ডায়রিয়ার ব্যাপ্তিকাল ও হামের জটিলতা কমায়। ফলে শিশু মৃত্যুর ঝুঁকি কমে।
বিগত বছরগুলোতে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন এর ব্যাপক সাফল্যের ফলে দেশব্যাপী রাতকানা রোগের হার ১ শতাংশের নিচে নেমে এসেছে। গবেষনায় দেখা গেছে যে, যেসব শিশু ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়া থেকে বাদ পড়ে গেছে তাদের অপুষ্টি সহ বিভিন্ন রকম রোগে ভোগার সম্ভাবনা বেশী। তাই আমাদের খেয়াল রাখতে হবে যে, যাতে কোন শিশু বাদ না পড়ে।
করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে প্রতিটি কেন্দ্রে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও হাত ধোয়ার ব্যবস্থা সহ স্বাস্থ্যকর্মীদের মাঝে মাস্ক, গ্লাভস সহ পর্যাপ্ত সুরক্ষা সামগ্রীর ব্যবস্থা করা হবে।