নিজস্ব প্রতিনিধি :
দেশব্যাপী হেফাজত ইসলামের ব্যানারে গত এক সাপ্তাহ দেশে বিভিন্ন কর্মসূচী পালন করা হয়। কর্মসূচীর অংশ হিসেবে হরতাল থেকে সব ধরনের ধ্বংস্তক কর্মসচী পালন করে এই সংগঠনটি। এদের হামলা থেকে বাদ যায় নি দেশের জাতীয় মসজিদ বাইতুল মোকারমও। আগুন দেওয়া হয় দেশের বিভিন্ন জানবাহনে, রেলষ্টেশনে, কাটা হয় বিপুল সংখ্যক গাছপালা, ধ্বংস করা হয় দেশের বিভিন্ন স্থাপনা, ভাস্কর্য ভাংচুর  দেশের তান্ডব পরিচালনা করা হয় হেফাজতের নেতৃত্বে।
এ সময় হেফাজত নেতারা দাবী করেন বাংলার মাটিতে ভারতের সরকার প্রধান নরেন্দ্র মোদি আসতে পারবে না। আসলে তারা এ দেশ অচল করে দিবে। কর্মসূচীতে অংশগ্রহণকারী বক্তারা বিভিন্ন স্থানে বলেন, আগামী দেশে যদি কোন আওয়ামীলীগ বা এর অঙ্গসংগঠনের কেউ মারা যায়, তাহলে তাদের জানাযা কোন হুজুর পড়াবেন না।
সেই বক্তব্যে প্রতিউত্তরে ফেনী জেলার ছাগলনাইয়া উপজেলার ছাত্রলীগ কর্মী ও বঙ্গবন্ধু ব্লাড ব্যাংক ছাগলনাইয়া’র পৌর শাখার সাধারণ সম্পাদক আবদুল্লাহ আল নোমান টাইমস বাংলা নিউজকে জানান, দেশের যে কোন প্রান্তরে যদি কোন আওয়ামী পরিবারের সদস্য মৃত্যু বরণ করে তাহলে আমাকে খবর দিবেন। আমি বিনা পারিশ্রমে উক্ত জানাযা পড়াবো ইনশাআল্লাহ।
এ সময় নোমান তার এফবি আইডিতে উক্ত ঘোষনা দিয়ে একটি স্ট্যাস্টাস দেন, তাহা পাঠকদের সুবিধার্থে হুবহু তুলে ধরা হলো:

আমি মোঃ আব্দুল্লাহ আল নোমান…..

ক্ষুদ্র কর্মী = বাংলাদেশ ছাত্রলীগ……..

ছাগলনাইয়া উপজেলা শাখা…………….

সাধারণ সম্পাদক- বঙ্গবন্ধু ব্লাড ব্যাংক ছাগলনাইয়া’র পৌর শাখা।

আমি একজন কাওমি মাদ্রাসার ছাত্র……

আমি হেফজ পড়েছি ৫ বছর…….

কাওমি মাদ্রাসাতে জামাতে চুয়াম পর্যন্ত পড়েছি…..

ইনশাআল্লাহ আমি আমার আ’লীগ, যুবলীগ ছাত্রলীগ ভাইদের জানাযার নামাজ পড়াতে পারবো….

আমি সর্বদা প্রস্তুত আমার ছাত্রলীগ ভাইদের জানাযার নামাজ পড়ানোর জন্য……

বাংলাদেশের যে কোন স্থানে যদি জানাযা পড়াতে হয় আমাকে খবর দিন। আমি ঠিক সময়ে চলে আসবো ইনশাআল্লাহ।

আবদুল্লাহ আল নোমান
ছাত্রলীগ কর্মী
ছাগলনাইয়া উপজেলা শাখা, ফেনী।