সোনাগাজীর আমিরাবাদে মাদক বিক্রিতে বাধা দেওয়ায় কামাল উদ্দিন নামের একজন কে পিঠিয়ে আহত করার অভিযোগ মাদক ব্যবসায়ী মোঃ ফেরদৌস ও নুর নবীর বিরুদ্ধে।

বাদী, এলাকাবাসী ও অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, সোনাগাজী উপজেলার আমিরাবাদ ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড চরকৃষ্ণজয় গ্রামের হানিফ মিয়ার বাড়ির মৃত মোঃ হানিফের ছেলে মোঃ ফেরদৌস ও নুর ইসলামের ছেলে নুর নবী বেড়ীবাঁধ এলাকায় দোকানে প্রকাশ্যে মাদক খাজা বিক্রি করে আসছেন দীর্ঘদিন ধরে। অপ্রাপ্ত বয়স্ক স্কুল কলেজ পড়ুয়া ছাত্রদের ক্ষতি করিয়া আসিতেছে।

১৫ এপ্রিল সকাল ১০টায় লকডাউন ও রমজানের ভিতর প্রকাশ্যে দোকান খুলে মাদক খাজা বিক্রি করার সময় দেখিয়া প্রতিবাদ করেন একই গ্রামের নশা মিয়ার ছেলে কামাল উদ্দিন। এতে বিবাদীরা ক্ষিপ্ত হইয়া ১নং বিবাদী ফেরদৌস কাঠ দিয়ে পিটাইয়া ২নং বিবাদী নুর নবী এলোপাতাড়ি কিলঘুষি লাথি মারিয়া শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম করে।

১নং বিবাদী তার দোকান হইতে দা নিয়ে আসিয়া কামালের শরিরের বিভিন্ন অংশে রক্তাক্ত কাটা জখম করে। সৌরচিৎকার শুনিয়া স্বাক্ষীরা এগিয়ে আসলে তাদেরকেও মারধর করিয়া জখম করে। এবং উক্ত বিষয়ে থানা পুলিশ মামলা মোকাদ্দমা করিলে খুন করবে বলে প্রকাশ্যে হুমকি দিয়ে থাকে। বাদী কামাল উদ্দিন আরো জানান, আমি নিরাপত্তা হীনতায় ভুগছি।

আমি নিরুপায় হইয়া সোনাগাজী মডেল থানায় অভিযোগ দায়ের করেছি এবং প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করি। সোনাগাজী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ সাজেদুল ইসলাম অভিযোগের সত্যতার নিশ্চিত করে জানান, অভিযোগ পেয়েছি তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।