টাইমস বাংলা নিউজ ডেস্ক :- 

সম্প্রতি “ইস্তাম্বুল সনদ” নামে পরিচিত ইউরোপীয় ইউনিয়নের একটা চুক্তি থেকে তুরস্ক বেরিয়ে যাওয়ায় হাজার হাজার নারী এর বিরোধিতা শুরু করেছে এবং রাস্তায় নেমে আন্দোলন শুরু করেছে।

ইস্তাম্বুল সনদ নামে পরিচিত ইউরোপীয় এই চুক্তিতে স্বাক্ষরকারী প্রতিটি দেশের বাধ্যবাধকতা রয়েছে যে তাদেরকে ‘বৈবাহিক সম্পর্কের ভেতরে ধর্ষণ’ এবং ‘মেয়েদের খৎনা রোধ’ সহ নারীদের বিরুদ্ধে সহিংসতা বন্ধে আইন তৈরি করতে হবে।
নারী অধিকার নিয়ে ইউরোপের ঐতিহাসিক সনদ থেকে তুরস্ক নিজেকে প্রত্যহার করে নেবার পর এর নিন্দা করেছে ইউরোপের শীর্ষ মানবাধিকার সংস্থা।কাউন্সিল অব ইউরোপের সেক্রেটারি জেনারেল মারিয়া বুরিচ বলেছেন – আঙ্কারার এই সিদ্ধান্ত তুরস্কের ভেতর এবং বাইরে নারীদের সুরক্ষার পরিপন্থী।

তবে তুরস্কের দাবি এই সনদে যে নারী-পুরুষের সাম্যের কথা বলা হয়েছে তাতে ‘পরিবারকে হেয় করা হয়েছে। তা ছাড়া এতে যৌন অভিরুচির জন্য কারো বিরুদ্ধে বৈষম্য না করার কথা আছে যা তাদের ভাষায় ‘সমকামিতাকে উৎসাহিত করে’ বলে তুরস্কের রক্ষণশীলরা বক্তব্য দিয়েছে।

তবে এ বক্তব্য মানতে নারাজ তুরস্কের নারীরা।তাদের দাবি এই সনদ থেকে বের হয়ে যাওয়ার ফলে তারা আরও সহিংসতার মুখে পড়বে।

 

টিবিএন/ আইএইচএস